মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৩৫ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ
এয়ারপোর্ট থানায় জিডি করলেন আবুল বশর অপু ছাতকে এনআরবিসি ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন গনধর্ষনের মামলায় বিচারকের রায় জাল! আল্লামা শাহ আহমদ শফির মৃত্যুতে ছাতকে উৎসর্গ ফাউন্ডেশনের শোক আল্লামা আহমদ শফির মৃত্যুতে ইউনাইটেড উলামা কাউন্সিলের শোক দুর্গাপূজায় ৩ দিনের ছুটির দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন আল্লামা আহমদ শফির মৃত্যুতে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাষ্ট্র শাখার শোক দোয়ারায় নরসিংপুর বাজারে ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন ছাতক থেকে একজন যোগ্য মানুষের বিদায়- সাংবাদিক তানভীর ঘুষ-দুর্নীতির ‘রসের হাঁড়ি’ শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন ভূমি অফিস অামি অান্তরিকতার সহিত কাজ করার চেষ্টা করেছি- বিদায়ী ওসি মোস্তফা কামাল বাউল সম্রাট শাহ্ আব্দুল করিমের প্রয়ান দিবসে জেলা প্রশাসনের শ্রদ্ধাঞ্জলী নবীগঞ্জে ৪’শ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার একজন বৈদুতিক লাইট জ্বালানোকে কেন্দ্র করে মালিকের হামলা, আহত ৩ ভাড়াটিয়া ইউনিয়ন নির্বাচনে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও আওয়ামী পরিবারের উত্তরসূরীদের মূল্যায়নের দাবি
চুনারুঘাটে ১৩ মামলার আসামীসহ গ্রেফতার ২

চুনারুঘাটে ১৩ মামলার আসামীসহ গ্রেফতার ২

শেয়ার করুনঃ

 

হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি, হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে ১৩টি মামলার পলাতক আসামী কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী বাঘা লিটন ও মাদক সম্রাট রাজু কে অবেশেষে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ।

সোমবার গভীর রাতে চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হক এর নেতৃত্বে এসআই শেখ আলী আজহার ও এসআই সম্রাট সহ একদল পুলিশ গোপন সংবাদর ভিত্তিতে উপজেলার সীমান্ত এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে রাজু ও বাঘা লিটনকে গ্রেফতার করা হয়।
রাজু গাজিপুর ইউনিয়নের পশ্চিম ডোলনা গ্রামের আজিম উদ্দিনের ছেলে ও বাঘা লিটন পৌরশহরের হাতুন্ডা গ্রামের জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে।

থানা সুত্র জানায়, তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা থাকলেও পুলিশের চোখকে ফাঁকি দিয়ে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। কুখ্যাত গাঁজা ব্যবসায়ী ডোলনার রাজু ও হাতুন্ডার বাঘা লিটন দীর্ঘদিন ধরে তার মাধ্যমে মাদক ব্যবসা অব্যাহত থাকায় এলাকায় নিত্যদিন বেড়ে চলছিল নানা অপরাধ। এতে স্থানীয় জনগণ ও জনপ্রতিনিধিরা উদ্ধিগ্ন হয়ে পড়েন।
এদিকে মাদকের গডফাদার বহু অপকর্মের হোতা রাজু ও বাঘা লিটন গ্রেফতারে স্বস্তি ফিরে এসেছে এলাকায়। তাদের গ্রেফতারে এলাকাবাসী প্রশাসনকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এবং এখন থেকে মাদকের হাট বন্ধ হবে বলে মনে করেন উপজেলার মানুষ। এ বিষয়ে আটক লিটন ও রাজু জানায় তারা আর ব্যবসা করবেনা জেল থেকে মুক্তি হলে ব্যবসা ছেড়ে দিবে।

স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ, তাদের মাদকের চালান গ্রামগঞ্জে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ায় এসব মাদক হাতের নাগালে পেয়ে ধ্বংসের দারপ্রান্তে পতিত হচ্ছে যুব সমাজ। মাদক সেবন করতে গিয়ে অনেক কিশোর, তরুণ জড়িয়ে পড়েছে বিভিন্ন অপরাধে। চুনারুঘাট বাল্লাসীমান্ত সীমা রেখায় অবস্থিত হওয়ায় মাদকের বিভিন্ন আখঁড়ায় পাচার করছে তাদের নেতৃত্বে মহলটি এমন তথ্যও ছিল পুলিশের নিকট। মাঝেমধ্যে এসব মাদকের চালান পুলিশ ও র‌্যাবের হাতে আটক হয়েছে।
মাদকের গডফাদার রাজু মাদকসহ পুলিশ ও র‌্যাবের হাতে কয়েকবার হাতেনাতে গ্রেফতার হয়ে কারাভোগের পর জামিনে বের হয়ে আসলে ফের নির্ভয়ে প্রকাশ্যে মাদকদ্রব্য বেচাকেনা করে আসছিল। এবার এলাকাবাসীর একটাই দাবী তাদের যাহাতে জামিন না দেয়া হয়। তাহলে মাদকের হাত থেকে বাচতে পারবে এলাকার যুব সমাজ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তারা বলেন, কুখ্যাত মাদক সম্রাট রাজু ও বাঘা লিটন গ্রেফতার করতে র‌্যাব ডিবি আমাদের অনেক অফিসার তাদের গ্রেফতার করতে চেষ্টা করেছেন। আমরা দীর্ঘদিন যাবত তাদেরকে গ্রেফতার করতে অনুসন্ধ্যানে মাঠে কাজ করে আসছিলাম। অবশেষে এসপি ও ওসি স্যারের দিক নির্দেশনায় তাদেরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। তাদের মত চিহ্নত মাদক ব্যবসায়ীরে ধরতে আমরা মাঠে কাজ করছি।
চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হক বলেন বাঘালিটনের ১৩টি মামলা ও রাজু বিরুদ্ধে ৩টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে অনেক মামলা চলমান। আমরা মাদকের বিরুদ্ধে শপথ করেছি সে অনুযায়ী আমাদের অ্যাকশন চলছে মাদক ব্যবসার ব্যাপারে কোন ছাড় নেই। চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

শেয়ার করুন

Sylhet24Live.Com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY POS Digital