শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৮:৪১ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ
সরকারকে অসহযোগিতা করার অভিযোগ ছাতক পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে ভক্তদের কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন কিংবদন্তি ফুটবলার বিদ্যালয়ের জায়গা জোরপূর্বক দখল ও চারা রোপন কৈতক ট্রমা সেন্টার নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন এমপি মানিক ছাতকে কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণী সম্পন্ন জমির খাজনা অনলাইনে ছাতক উত্তর সুরমা প্রবাসী কল্যাণ সোসাইটির অাত্মপ্রকাশ ছাতকে অানুষ্টানিক ভাবে উদ্বোধন হলো খাঁজা ট্রাভেলস যদি আমাকে ভালোবাসিস, তবে সুরা ইয়াসিন পড়ে দোয়া করিস সুনামগঞ্জ জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত তাহিরপুরে পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ তাহিরপুরে মাদ্রাসায় নিয়োগে অনিয়ম- ৩০ লক্ষ টাকা ঘুষের অভিযোগ  দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার করোনায় আক্রান্ত সুনামগঞ্জের দোযারাবাজারে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষক আটক(১) সাংবাদিক আরিফুর রহমানের পিতার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ
বিশ্বতালিকায় প্রথম কোভিড ভ্যাকসিনের সফলতা কী রাশিয়ায়?

বিশ্বতালিকায় প্রথম কোভিড ভ্যাকসিনের সফলতা কী রাশিয়ায়?

শেয়ার করুনঃ

 

সব ঠিকঠাক চললে, রাশিয়া হতে চলেছে বিশ্বের প্রথম কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী দেশ। রুশ সংবাদসংস্থা স্পুটনিক নিউজ জানিয়েছে, আগামী সপ্তাহেই বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নথিভুক্ত করতে চলেছে ভ্লাদিমির পুতিনের দেশ। দেশের উপ-স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওলেগ গ্রিদনেভ শুক্রবার জানান, আগামী ১২ অগাস্ট প্রথম করোনা ভ্যাকসিনকে নথিভুক্ত করা হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাইল মুরাশকো জানান, অক্টোবর থেকেই ওই ভ্যাকসিনের গণ-উৎপাদন শুরু হয়ে যাবে। তিনি জানান, টিকাকরণ প্রক্রিয়ার গোটা খরচটাই বহন করবে প্রশাসন।

সংবাদসংস্থা গ্রিদনেভ বলেন, বর্তমানে ট্রায়াল প্রক্রিয়া তৃতীয় তথা শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এই ট্রায়ালগুলি অত্য়ন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের এটা বুঝতে হবে, যে ভ্যাকসিনকে নিরাপদ হতে হবে। দেশের চিকিৎসা কর্মী ও প্রবীণ নাগরিকদের প্রথমে টিকাকরণ করা হবে। তিনি জানান, রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ও গামালেয়া গবেষণা ইনস্টিটিউটের যৌথ উদ্যোগে তৈরি এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা তখন বোঝা যাবে, যখন দশবাসীর শরীরে এই ভাইরাসের মোকাবিলায় প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠবে।

বর্তমানে দুটি পৃথক জায়গায় এই ভ্যাকসিনের প্রয়োগ-পরীক্ষা চলছে। একটি বুরদেঙ্কো মেইন মিলিটারি হাসপাতাল ও দ্বিতীয় শেচেনভ ফার্স্ট মস্কো স্টেট মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি। জানা গিয়েছে, রুশ ভ্যাকসিনের দুটি পৃথক উপাদান রয়েছে। সেগুলি আলাদা আলাদা ভাবে প্রয়োগ করা হচ্ছে। রুশ সরকারের দাবি, এর ফলে, ভাইরাসের বিরুদ্ধে দীর্ঘমেয়াদী প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠবে।

রুশ সরকার দাবি করেছে, যারা এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করেছে তাঁদের সকলের শরীরে রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। গত ১৮ জুন এই ট্রায়াল শুরু হয়েছে। অংশ নিয়েছে ৩৮ জন। এরমধ্য়েই, রাশিয়ায় আরেকটি ভ্যাকসিন নিয়ে গবেষণা চলছে। সেটি তৈরি করেছে ভেক্টর স্টেট রিসার্চ সেন্টার অফ ভাইরোলজি অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি। সংস্থার দাবি, আগামী নভেম্বর থেকেই তারা এই ভ্যাকসিনের উৎপাদন শুরু করতে পারবে।

শেয়ার করুন

Sylhet24Live.Com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY POS Digital