মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ১১:০২ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ
বিশ্বনাথে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বয়স্ক ও প্রতিবন্ধী ভাতা আত্মসাতের অভিযোগ ছাতকে নানান অায়োজনে উদয়ন রক্তদান সমাজ কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন সতিনপো’র রডের ঘাই’য়ে রক্তাক্ত সত মা ছাতকে পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে থানা পুলিশের মতবিনিময় ছাতকে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত রোববার থেকে সারাদেশে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সংযোগ তিন ঘণ্টা করে বিচ্ছিন্ন থাকবে দু’দফা বৈঠকের পর স্বাভাবিক হল সুনামগঞ্জ-সিলেটের অটো চলাচল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের আনন্দ সমাবেশ সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার যুবক ঘুষ-দুর্নীতি ঢাকতে উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জনের নাটক সুনামগঞ্জের প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, থানায় অভিযোগ দায়ের ১৫ অক্টোবরের সমাবেশ সফল করার অাহব্বান মুফতি ক্বাসিমীর দোয়ারাবাজারে তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারী এখন কোটিপতি, নামগঞ্জ-সিলেটে সম্পদের পাহাড় আল্লামা মামুনুল হক ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব নির্বাচিত, মুফতি ক্বাসীমীর অভিনন্দন কুলাউড়ার টিলাগাও এ তরুন সনাতনী সংঘ (টিএসএস) এর গুরুকুল জ্ঞানগৃগ (গীতাস্কুল) উদ্ভোদন
ঘুষ-দুর্নীতি ঢাকতে উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জনের নাটক

ঘুষ-দুর্নীতি ঢাকতে উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জনের নাটক

শেয়ার করুনঃ

 

শাবজল হোসাইন : তাহিরপুর উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়ন ডিহিভাটী ভূমি অফিসের উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জন কুমার দাস’র অনিয়ম ঘুষ-দুর্নীতি নিয়ে গ্রামীন নিউজ২৪টিভি সহ অসংখ্য সংবাদ মাধ্যমে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঘুষ-দুর্নীতির ভিডিও চিত্র ভাইরাল হয়। পরে ঐ সংবাদ ও ভিডিও চিত্র ভাইরাল হলে নজর পড়ে ভূমি মন্ত্রনালয়ের।

এরপর টনক নড়ে প্রশাসনের। আর তখনেই নিজেকে বাঁচাতে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য রঞ্জন, তার সহায়তাকারী মানিক দাস, অফিস সহায়ক কাজল দাস ও স্থানীয় দালাল, দীর্ঘ দিন ধরে মাসোয়ারা নেওয়া কথিত সাংবাদিক নামধারীদের একটি অংশ শুরু করে দৌড়ঝাঁপ ও নানান নাটকীয়তা। অনিয়ম, ঘুষ-দুর্নীতি দামাচাপা দিতে ও তদন্ত ভিন্ন খাতে প্রদর্শনের জন্য অবলম্বন করেন ভিন্ন ভিন্ন কৌশল ও নানান নাটকের জন্ম দেন উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জন।

অবশেষে পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ ও ভিডিও চিত্রে অভিযোগের ভিত্তিত্বে তর্দন্ত করেছেন তাহিরপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দ আমজাদ হোসেন। তিনি উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন ভূমি অফিস (ডিভিহাটি) সরেজমিনে তদন্ত করেন।

এদিকে গোগন সুত্রে জানাযায়, তদন্ত শুরুর পর রঞ্জন ও তার সহায়তাকারী স্থানীয় দালাল, দীর্ঘ দিন ধরে মাসোয়ারা নেওয়া কথিত সাংবাদিক নামধারীদের একটি অংশ নিয়ে যাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নিয়েছে তাদের কাছে রাতের আধাঁরে সেই টাকা ফেরৎ দিয়ে হাতে পায়ে ধরে মাফ চেয়েছেন এবং তার পক্ষে কথা বলার জন্য বলে এসেছেন এবং তাদের অনিয়ম, ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বললে নানান বিপদে পড়তে হবে বলে হুমকিও দেন ভুক্তভোগীদের। এমন সব ভিডিও ও অডিও রেকর্ড এ প্রতিবেদকের নিকট সংরক্ষিত আছে । আর তাকে বাচাঁতে দালাল, দীর্ঘ দিন ধরে মাসোয়ারা নেওয়া কথিত সাংবাদিক নামধারীদের একটি অংশ বিভিন্ন ভাবে তৎবির চালিয়ে ঘটনাটিকে ধামাচাপা দিতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। যার জন্য তহসিলদার রঞ্জন ধাম্বিকতার সাথে বুক ফলিয়ে এলাকায় দাপটের সাথে আবারও তার ঘুষ-দুর্নীতির অঝোরে চলছে।

স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ রয়েছে, শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন ভূমি অফিস (ডিভিহাটি)র’ উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জন কুমার দাশের অনিয়ম, ঘুষ-দুর্নীতি কারনে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন হচ্ছে। তিনি সরকারী নিদর্শনাকে বৃদ্ধাংগুলি দেখিয়ে অনিয়মকে নিয়মে পরিনত করেছেন। খাজনা আদায়, জমি রেজিস্ট্রেশন, নামজারি, জমির শ্রেণি পরিবর্তন, ভূমি অধিগ্রহণে চেক জালিয়াতি, নীতিমালা ভঙ্গ করে জমি বরাদ্দ দেওয়া, জলমহাল ইজারা, জমির মূল্যের চেয়ে বেশী কর দাবী করা, সময়মত অফিস না করা, জমিতে ঝামেলা আছে আজ হবে না কাল আসেন বলা এছাড়াও ঐ কর্মকর্তার চাহিদা মত টাকা না দিলে বাজে আচরণ করেন।
পরে দালালের মাধ্যমে অর্থের বিনিময়ে সমঝতায় আসলেই সকল সমস্যার সমাধান হয়ে যায়। আর এভাবে প্রতিদিনেই লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা অফিস (ডিহিভাটী)র’ উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জন কুমার দাস।

এছাড়াও রঞ্জন ও তার অফিস সহায়ক কাজল দাসেরও রয়েছে জেলার বিভিন্ন স্থানে প্রায় কোটি টাকার সম্পদ।

রহিম উদ্দিন,আমির আলীসহ সচেতন মহল বলেন, ইউনিয়ন ভূমি অফিসের অসৎ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনিয়ম, ঘুষ-দুর্নীতি, জালিয়াতি ও স্বেচ্ছাচারিতার কারণে ভূমি খাত দুর্নীতির বিষবৃক্ষে পরিণত হয়েছে। দালাল-কর্মচারী সিন্ডিকেটের উৎপাতে সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ। এছাড়াও আগত লোকজন তার অনিয়মের প্রতিবাদ করলেই তার বোন জামাই বাড়ি ভূমি অফিসের পাশে হওয়ায় লোকজন নিয়ে মামলাসহ নানান ভাবে হুমকি দেন। এতে করে প্রতিনিয়ত হয়রানি ও প্রতারণার শিকার হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। সরকারের সুনাম রক্ষায় এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া দরকার বললেন সচেতন মহল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছিুক স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, জনসম্পৃক্ত অতি গুরুত্বপূর্ণ এই খাতের অনিয়মগুলো সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত না হয় এজন্য স্থানীয় কয়েকজন কথিত সাংবাদিক নামধারী ব্যক্তিকে র্দীঘ দিন ধরেই মাসোহারা দিয়ে আসছে রঞ্জন। ফলে দৌরাত্ম বেড়েছে তার নিয়ন্ত্রিত সিন্ডিকেটেরও।

এই বিষয়ে শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জন কুমার দাস বলেন, আমি কোন অনিয়ম করিনি। এছাড়াও সেবাপ্রার্থীদের অভিযোগ অস্বীকার করেন। বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার উর্ধবতন কতৃপক্ষ সব জানেন। আমি বেশী কিছু বলতে পারব না।

তাহিরপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দ আমজাদ হোসেন বলেন, তদন্ত করছি। তদন্ত শেষে আমি আমার উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট জমা দিব।

শেয়ার করুন

Sylhet24Live.Com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY POS Digital