বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ
এমপিওভুক্ত শিক্ষা জাতীয়করণ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ছাতকে প্রথম বারের মতো ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহন তাহিরপুরে সাংসদ সদস্য রতনের রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বিশ্বনাথে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বয়স্ক ও প্রতিবন্ধী ভাতা আত্মসাতের অভিযোগ ছাতকে নানান অায়োজনে উদয়ন রক্তদান সমাজ কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন সতিনপো’র রডের ঘাই’য়ে রক্তাক্ত সত মা ছাতকে পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে থানা পুলিশের মতবিনিময় ছাতকে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত রোববার থেকে সারাদেশে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সংযোগ তিন ঘণ্টা করে বিচ্ছিন্ন থাকবে দু’দফা বৈঠকের পর স্বাভাবিক হল সুনামগঞ্জ-সিলেটের অটো চলাচল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের আনন্দ সমাবেশ সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার যুবক ঘুষ-দুর্নীতি ঢাকতে উপ-সহকারী কর্মকর্তা রঞ্জনের নাটক সুনামগঞ্জের প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, থানায় অভিযোগ দায়ের ১৫ অক্টোবরের সমাবেশ সফল করার অাহব্বান মুফতি ক্বাসিমীর
সংগঠনগুলির পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা

সংগঠনগুলির পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা

শেয়ার করুনঃ

 

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের চারটি সহযোগী সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। সম্মেলনের সাত মাসেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি দিতে পারেনি কৃষক লীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুবলীগ। গেল বছরের নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসে এ চারটি সংগঠনের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সময় জানুয়ারির মধ্যে কমিটি ঘোষণার কথা বলা হলেও পরে তা মার্চ মাস পর্যন্ত বাড়ানো হয়। কিন্তু মার্চেই দেশে হানা দেয় প্রাণঘাতি করোনা। দেশজুড়ে তৈরি হওয়া অচলাবস্থায় থমকে সহযোগী চার সংগঠনে পুর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন প্রক্রিয়া।

করোনা প্রতিরোধে টানা দুমাসের সাধারণ ছুটি শেষে সবকিছু ধাপে ধাপে পুনরায় সচল হলেও সহযোগী সংগঠনগুলোর কমিটি গঠনে কথা আওয়ামী লীগের কোনো নেতাই মুখে আনছেন না। এতে করোনার প্রভাবে তৈরি হওয়া মানসিক চাপের সঙ্গে সহযোগী সংগঠনের পদপ্রত্যাশী ও তৃণমূল নেতাকর্মীদের ভেতর বিরাজ করছে হতাশা। কেউ কেউ এরই মধ্যে রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় হয়ে যাওয়ারও চিন্তাভাবনা শুরু করেছেন।

গতবছর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমারোহে ৬ নভেম্বর কৃষক লীগ, ৯ নভেম্বর আওয়ামী লীগের একমাত্র ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন জাতীয় শ্রমিক লীগ, ১৬ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও বহুল আলোচিত-সমালোচিত যুবলীগের সপ্তম জাতীয় কংগ্রেস হয় ২৩ নভেম্বর। আর ও ২০ ও ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলন হয়। সম্মেলনের পরপরই আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা হলেও আটকে যায় চার এ সহযোগী সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি।

এর মধ্যে র্দীর্ঘ সাত বছর পর অনুষ্ঠিত হয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন। এতে দলের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহকে সভাপতি ও আফজালুর রহমান বাবুকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। তিন মাস আগে ১৫১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দেওয়া হয় আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর। এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু জানান, তিন মাস আগে আমরা পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দিয়েছি। বিষয়টি আমাদের নেত্রী দেখছেন। করোনার কারণেই হয়তো ঘোষণা হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী যখন অনুমতি দেবেন তখনই এ কমিটি ঘোষণা করা হয়।

অপর সহযোগী সংগঠন কৃষক লীগের ১১১ সদস্যর কমিটি জমা দেওয়া হয় সম্মেলনের এক সপ্তাহের মধ্যেই। তারপর বিভিন্ন রাজনৈতিক জটিলতা এবং মুজিববর্ষের কারণে তাৎক্ষণিক কমিটি ঘোষণা করা হয়নি। আর চলতি বছরে যুক্ত হয়েছে মহামারি করোনা। সবকিছু মিলেই আটকে আছে কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিও। সংগঠনটির সভাপতি সমীর চন্দ্র বলেন, পুরোনো গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সভাপতি ও সম্পাদকসহ আমরা ১১১ সদস্যের কমিটি জমা দিয়েছি। এর মধ্যে আর ঘোষণা দেওয়া হয়নি। আশা করছি, করোনা সংক্রমণ কেটে গেলে আমাদের কমিটি ঘোষণা হবে।

আওয়ামী যুবলীগের সপ্তম জাতীয় কংগ্রেসে সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মনির বড় ছেলে শেখ ফজলে শামস পরশকে দলের চেয়ারম্যান ও যুবলীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের সাবেক সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিলকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা। সম্মেলনের আগে সন্ত্রাসী চাঁদাবাজি ক্যাসিনোসহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডের দায়ে সংগঠনটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা রয়েছেন কারাগারে। সব মিলিয়ে এবার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে বুঝেশুনে সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন দলের দুই নীতি নির্ধারক। আর এরই মধ্যে মহামারি করনোর কারণে আটকে যায় সাংগঠনিক কর্মতৎপরতা।

একই পরিস্থিতির মুখে পড়েছেন আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন জাতীয় শ্রমিক লীগ। শ্রমিক নিয়ে কাজ করা এ সংগঠনটিরও সাংগঠনিক কর্মকান্ড স্থবির হয়ে পড়েছে। গেল বছর ৯ নভেম্বর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টুকে সভাপতি ও আজম খসরুকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। এছাড়া ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগেরও সম্মেলন হয়েছে গত বছর। আওয়াম লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোতে সম্মেলনের পর পুর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন নিয়ে নেতাকর্মীদের যে উৎসাহ-উদ্দীপনা তৈরি হয়েছিল তার দীর্ঘসূত্রতায় তৃণমূলে হতাশা বাড়ছে।

শেয়ার করুন

Sylhet24Live.Com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY POS Digital